Golden Cauldron Logo

রাস্তা


by published


" ঘরে ফেরার তাড়া নেই যার
ঠিকানা ভুলেছে অনভ্যাসে
সে গন্তব্য নয়, শুধু রাস্তা ভালোবাসে"।

ঠিক এই রকমই গাছের ছায়ায় আদর মাখা রাস্তায় সন্ধে নামার মুখে হেঁটে যাবো আর আমার পথ বেঁধে দেবে "বন্ধনহীন গ্রন্থি "। বাঙালির শুধু শয়নে স্বপনেই রবি ঠাকুর নেই, তিনি থাকেন যাপনেও। তাই হয়তো নিজের অজান্তেই গুনগুনিয়ে উঠবো," গ্রাম ছাড়া ওই রাঙা মাটির পথ, আমার মন ভুলায় রে"।চোখ থাকবে রাস্তা ছাড়িয়ে বহুদূরে।"সেইখানে কেউ যায় না, কেউ যায়নি কোনোদিনই "।যেখানে একটা ছোট্ট নদী আছে। তার জলে লেখা হয় প্রেম অপ্রেমের গল্প।যেখানে সপ্তাহান্তে হাট বসে, সেই হাটে সওদা হয় সুখ দুঃখের।

যাওয়ার পথে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নামবে। রাঙামাটির ধুলো ধুয়ে যাবে, ধুয়ে যাবে ক্লান্তি, ব্যথা, মনখারাপ আর "চোখের সামনে ঝাপসা হবে দিক, ভালোবাসাদের দেখা হয়ে যাওয়া কাজ/ আবার কোথাও আমরা ভিজবো ঠিক"।প্রতিটি প্রেমের গল্পের মতো একটু নাটকীয়তা কিংবা অতিনাটকীয়তার মধ্যেই দেখা হবে গল্পের নায়কের সাথে।তারপর সোনাঝুরির পথ বেয়ে অনেকটা হাঁটব, কোপাইয়ের তীরে বসে পূর্ণিমার রাত উপভোগ করব।তারপর বহু পথ হেঁটে ক্লান্ত পথিক ফিরে যাবে তার বাড়ি। তখনই আমার মনে পড়বে," হাজার বছর ধরে আমি পথ হাঁটিতেছি পৃথিবীর পথে"-- আদপে আমি নই আমরা হাঁটি।কেউ হাঁটি গন্তব্যে পৌছোনোর জন্য, কেউবা শ্রান্ত শরীরে ফিরতে চাই ঘরে, গল্প লিখতে হাঁটি, গল্প করতে হাঁটি, সময়ের সাথে তাল মেলাতে হাঁটি, নিজেকে খোঁজার জন্য হেঁটে চলি নিরুদ্দেশের পথে।

এইসব সাত-পাঁচ ভাবতে ভাবতে আবার যখন চোখ পড়বে ঘড়ির ডায়ালে, ফিরে আসবো রাঙা মাটির পথে। ক্লান্ত শরীরকে বিশ্রাম দেবো কোনো গাছের তলায়।সবাই হয়তো আমরা শরীরে হাঁটতে পারি না।মনে ভর দিয়েই আমরা হেঁটে চলি অচেনা গলিতে।জীবনে চলার পথে রাঙামাটির গাছেদের মতো মানুষ বড্ড দরকার। হাঁটতে গিয়ে আমরা ক্লান্ত হলে জিরোবো তাদের কাছে।তারা আমাদের যত্ন করবে, তৃপ্ত করবে, ধুইয়ে দেবে ক্লান্তি।এতটা পথ হেঁটে আমার কষ্টকে ম্লান করবে আর অম্লান হবে স্মৃতি।খানিক বাদে আবার শুরু করবো চলতে। আবার কখনও কখনও পরিশ্রান্ত হলে বসবো দু'-চার মিনিট।

এইভাবে একসময় আকাশ ভরা তারায় নামবে রাত। মফঃস্বলের দূরের বাড়িতে তখনও জ্বলবে আলো।আর রাতচরা পাখিরা ডেকে উঠবে মুহূর্মুহূ। সম্মোহিতের মতো চলবো অজানার দেশে। চাঁদের আলোর আলপনায় সরীসৃপের মতো এঁকে বেঁকে নিকশ কালো অন্ধকার আর নির্জন রাস্তাটা। ঠাণ্ডা হাওয়ায় ঘুম পাবে খুব, তখনই মনে পড়বে " Miles to go before I sleep".

এই অবধি লিখেই বিশ্রাম নেবে কথক। তারপর? তারপর রাত ভোর হবে। রাঙামাটির রাস্তায় খেলা করবে রোদের কুঁচি--- " এক পৃথিবী স্বপ্ন দেখার সাধ্য থাকবে যে রূপকথার, সে রূপকথা আমার একার"। কিন্তু কথক বড্ড শহুরে।কিছুক্ষণ পরেই তার মনে পড়বে লোকাল ট্রেনের লৌকিকতা আর যান্ত্রিক ছন্দের কথা।সে আবার ফিরতে চাইবে ইঁট কাঠ কংক্রিটের শহুরে আলাপনে। কিন্তু--- " Lord I can't go back home this old way".